ঢাকা শনিবার, ২৩শে মার্চ ২০১৯, ১০ই চৈত্র ১৪২৫


ইউসুফ ইফতি-র আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি 'সরস্বত সম্মান' লাভ


১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৭:৩৫

আপডেট:
২৩ মার্চ ২০১৯ ২১:০৪

ইউসুফ ইফতি-র আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি 'সরস্বত সম্মান' লাভ

বাংলাদেশে হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট এর কাজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় বাংলাদেশের স্বনামধন্য কর্পোরেট ট্রেইনার ও পাবলিক স্পিকার জনাব ইউসুফ ইফতি কোলকাতার জি এল এফ বিজনেস স্কুল (বিশ্ববিদ্যালয়) থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ এই আন্তর্জাতিক সম্মান অর্থাৎ 'সরস্বত সম্মান' লাভ করেন।

ভার্সিটির নিজস্ব অডিটোরিয়ামে সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিদের উপস্থীতিতে জি এল এফ বিজনেস ইউনিভার্সিটির পরিচালক প্রফেসর অভিজিৎ ব্যানার্জি এবং ডিন লোপা মুদ্রা ভট্টাচারিয়া এই সম্মাননা স্বারক প্রদান করেন। উক্ত অনুষ্ঠানের শেষে জনাব ইউসুফ ইফতি কিভাবে অন্য মানুষদের কাছে নিজেকে পছন্দনিয় করে তোলা যায় এই বিশয়ে সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষন প্রদান করেন। 

সমাজে বিভিন্ন পেশায় অবদান রাখার জন্য জি এল এফ বিজনেস স্কুল এবার ০৫ জন বিশিষ্ট ব্যাক্তিকে এই সম্মাননা প্রদান করেন। যে ০৫ জন ব্যাক্তিকে এই 'সরস্বত সম্মান' স্বারক প্রদান করেন। তারা হলেন-

১। ডঃ তানিয়া দাশ, ক্যানসার বিজ্ঞানী, ডিন এবং প্রফেসর, বোস ইনষ্টিটিউট, কোলকাতা

২। সমীর কুমার বাগচী, লেখক, কোলকাতা

৩। ডঃ গৌরীশঙ্কর সা, সিনিয়র প্রফেসর, বোস ইনষ্টিটিউট, কোলকাতা

৪। জনাব কল্লোল ঘোষ, সমাজ সেবক, কোলকাতা

৫। জনাব মোহাম্মদ ইউসুফ ইফতি, প্রশিক্ষক, বাংলাদেশ

এই অর্জন উপলক্ষে জনাব ইফতি বলেন, যেকোন সম্মাননাই কাজের স্বীকৃতি এবং তা যদি হয় আন্তর্জাতিক পরিমন্ডল থেকে তখন তা হয় আরো বেশি ভালো লাগার এবং তখন কাজের জন্য দায়িত্ববোধ আরো বেড়ে যায়। আমি মনে করি একজন বাংলাদেশী হিসেবে এই অর্জন বাংলাদেশ ট্রেনিং ইন্ডাষ্ট্রির জন্যে অনেক গর্বের। এত গুনী মানুষদের ভিড়ে আমাকে যে সম্মান জানানো হয়েছে আমি মনে করি জি এল এফ ম্যানেজমেন্ট আমাকে বাংলাদেশী হিসেবে একটু বেশি প্রাধান্য দিয়েছে। আমার থেকেও অনেক গুনী মানুষ বাংলাদেশ তথা কোলকাতাতেই আছে।

প্রসঙ্গত, জনাব ইউসুফ ইফতি ফিউচার আইকন এর প্রতিষ্ঠাতা পাশাপাশি ফিউচার লিডার্স এলায়েন্স লিঃ-এর পরিচালক এবং কনসালটেন্ট ও ফাষ্ট এইড হাসপাতাল লিঃ- এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষক, বক্তা ও সমাজ সেবক। গত বছর তিনি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে সমাজ সেবার জন্য 'গ্লোবাল গুড উইল এম্বাসেডর' হিসেবে স্বীকৃতি পান।