ঢাকা শুক্রবার, ২৬শে এপ্রিল ২০১৯, ১৩ই বৈশাখ ১৪২৬


বাস্তবে হিরো মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগ ও সাধারন সম্পাদক নাঈমুল হাসান রাসেল


৪ এপ্রিল ২০১৯ ১৩:৫৯

আপডেট:
৪ এপ্রিল ২০১৯ ১৪:১২

ফাইল ছবি

সকল ছাত্র-ছাত্রীদের ও অভিভাবকদের কাছে তিনি বাস্তব হিরো এবং ছাত্র-ছাত্রীরা জানান, নাইম ভাইয়াকে আমরা সবসময় কাছে পাই তিনি নীতিগত দিকদিয়ে খুব ভালো এবং অন্যায়কে প্রশ্রয়দেন না । তিনি নীতির দিকদিয়ে যেমন কঠোর ঠিক ব্যক্তি জিবনে ততোটা নমনীয়, আশা করি তিনি আমাদের পাশে সবসময় থাকবেন।

বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক জনাব নাইমুল হাসান রাসেল মোহাম্মদপুর থানার প্রতিটি স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের হাফ বাস ভাড়া দাবির প্রেক্ষিতে ছাত্রলীগকে সাথে নিয়ে অক্লান্ত পরিশ্রম করে এটিসিএল, প্রজাপতি, পরিস্থান, স্বাধীন, বিআরটিসি সার্ভিসসহ বিভিন্ন বাস কোম্পানি মালিকদের সাথে বৈঠক করে পুর্ণাঙ্গগভাবে, ছাত্র-ছাত্রীদের হাফ বাস ভাড়া মঞ্জুর কার্যকর করান।

প্রায় দেখা যায় বাসের হেলপারের সাথে ছাত্র-ছাত্রীদের রোজকার তর্কবিতর্ক। আর যদি সেটা হয় হাফ ভাড়া তাহলে তো কথাই নাই। ভাড়া নিয়ে। এমন ঝগড়া শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পর এখনও হচ্ছে প্রতিদিন। কারণ সেটা স্টুডেন্ট ভাড়া।

ছাত্র-ছাত্রীদের নিত্যদিনের কাহিনী, ভার্সিটি যেতে এসব হবেই কারণ কোম্পানি নাম দিয়ে সরকারি রাস্তাতে কিছু বাস নামিয়ে দিছে যার মধ্যে লিখা থাকে হাফ-পাস নাই। চিপা-চাপা যেখানে একটা মানুষ পাবে সেখান থেকেই তুলে নেবে। বাসে লোক তোলার জায়গা না থাকলেও দরজাতেও জায়গা করে নেয়। কিন্তু দুর্ভাগ্য ছাদে উপায় নেই নেয়ার, না হয় সেখানেও নিতো।

ছাত্রদের জন্য হাফ ভাড়া সরকার অনেক আগে করে রেখেছে কিন্তু এই বাসগুলো সরকারের কথা মতো কাজ করছে না। নিজেদেরই সরকার ভাবে আর রাস্তাটাও। হাফ ভাড়া নেই কিন্তু সিটিং সার্ভিসের কথা বলে দাঁড়িয়ে আসতে হয় তাও আবার পুরো ভাড়া দিয়ে।

সম্প্রতি নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমেছিল। তখন তারা নয় দফা দাবি তোলে। এর মধ্যে একটি দাবি ছিলও প্রতিটি বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য হাফ ভাড়ার ব্যবস্থা করতে হবে। আন্দোলন স্থগিত হলেও এখনও গণপরিবহনগুলোতে হাফ ভাড়া নেয়া হয় না। এমন বাস্তবতায় এগিয়ে এসেছে ঢাকা মহানগর-উত্তর মোহাম্মদপুর থানার ছাত্রলীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক জনাব নাইমুল হাসান রাসেল। মোহাম্মদপুর থানার প্রতিটি স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের হাফ বাস ভাড়া দাবির প্রেক্ষিতে জনাব নাইমুল হাসান রাসেল মোহাম্মদপুর থানার ছাত্রলীগকে সাথে নিয়ে অক্লান্ত পরিশ্রম করে এটিসিএল, প্রজাপতি, পরিস্থান, স্বাধীন, বিআরটিসি সার্ভিসসহ বিভিন্ন বাস কোম্পানি মালিকদের সাথে বৈঠক করে পুর্ণাঙ্গগভাবে, ছাত্র-ছাত্রীদের হাফ বাস ভাড়া মঞ্জুর কার্যকর করান। তবে ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে আইডি কার্ড অথবা ইউনিফর্ম থাকতে হবে।

জনাব নাইমুল হাসান রাসেল এর মহা উদ্যোগে ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী এবং রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আস্থাশীল ছাত্রদের নিয়েই এই ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগ ছাত্র-ছাত্রীদের কল্যানে কাজ করবে। এই ছাত্রলীগকে সাথে নিয়েই যেকোনো অন্যায়ের বিরুদ্ধে সব সময় রুখে দাড়ানোর জন্য আমি প্রস্তুত।

জনাব নাঈমুল হাসান রাসেল তার এই ধারাবাহিক সাফল্য অর্জনের জন্য মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগ ও সাধারন ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বিশেষ ধন্যবাদ জানান।

নতুনসময় / আইআর