ঢাকা বুধবার, ২৪শে জুলাই ২০১৯, ৯ই শ্রাবণ ১৪২৬


টেলিটকের প্রত্যাশিত গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর নির্দেশ


১৫ মে ২০১৯ ১৮:৩৬

আপডেট:
২৪ জুলাই ২০১৯ ০২:১৯

সংগৃহীত ছবি

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, জনগণের দোরগোড়ায় তথ্যপ্রযুক্তির সুফল পৌঁছে দিতে গ্রাম পর্যন্ত নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ করার লক্ষ্যে যুগান্তকারি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তির আকাশচুম্বি অগ্রগতির ফলে বাংলাদেশের এমন কোন গ্রাম নেই, যেখানে ডাটার চাহিদা নেই। কেবল বাণিজ্যিক সফলতার জন্য নয়, দেশের সকল শ্রেণির সকল মানুষের কল্যানের বিষয়টি মাথায় রেখে দূর্গম এলাকাসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছে টেলিটক নেটওয়ার্ক পৌঁছে দিতে এবং টেলিটকের কাছে গ্রাহকদের প্রত্যাশিত সেবা নিশ্চিত করতে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় গুলশানে টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রধান কার্যালয় পরিদর্শনকালে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এই নির্দেশ দেন।

মন্ত্রী কিছু কিছু ক্ষেত্রে টেলিটকের বিদ্যমান ২.৫ জি সার্ভিসকে অধিকতর উন্নয়নের নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি বলেন, ডাটার সাথে না থাকলে টিকে থাকা যাবে না। আগামী দিনে ভয়েজ কলও ডাটার মাধ্যমেই হবে।

টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী গত দশ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ ৭ দশমিক ৫ জিবিপিএস থেকে বর্তমানে ১১শত জিবিপিএসে উন্নীত হওয়াকে দেশের তথ্যপ্রযুক্তিখাতের বিকাশে এক বিস্ময়কর অগ্রগতির বিরল দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, দশ বছরে দেশের টেলিডেনসিটি এবং ইন্টারনেট ডেনসিটি যেমন অবিশ^াস্য গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের প্রতিটি সূচকে বিশে^ অনুকরণীয় এক দৃষ্টানÍ স্থাপন করেছে।

বৈঠকে টেলিটকের বিস্তারিত তথ্য বিশেষ করে চলমান বিভিন্ন কর্মসূচি ও ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা এবং টেলিটকের বিভিন্ন সেবা সম্পর্কে মন্ত্রীকে অবহিত করা হয়। বৈঠকে মন্ত্রীকে জানানো হয়, টেলিটক সাড়ে চারহাজার বিটিএস এর মাধ্যমে দেশের শতকরা প্রায় ৪৩ ভাগ এলাকায় মোবাইল সার্ভিস প্রদান করছে। এছাড়া সাশ্রয়ী মূল্যে ডাটা প্যাক, বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ, বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয় ও মেডিক্যাল ভর্তি, চাকুরির আবেদন গ্রহণসহ টেলিটকের বিদ্যমান বিভিন্ন সার্ভিস ও কর্মসূচি বৈঠকে তুলে ধরা হয়।
সম্প্রতি ঘুর্ণিঝড় ফণী সম্পর্কিত তথ্য প্রদানে টেলিটক উদ্ভাবিত আইপি ভিত্তিক কল সেন্টারের কার্যকর ভূমিকা নিয়েও বৈঠকে আলোকপাত করা হয়।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, অতিরিক্ত সচিব মো: আজিজুল ইসলাম এবং টেলিটক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: সাহাব উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী ইউএসএসডি প্লাটফর্ম থেকে টেলিটকের সকল সেবা গ্রহণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

পরে গুলশানে টেলিটক কাস্টমার সার্ভিস সেন্টার পরিদর্শন করেন। তিনি সেখানে উপস্থিত গ্রাহক ও সার্ভিস সেন্টারের কর্মীদের সাথে কথা বলেন।

নতুনসময় / আইআর