ঢাকা বুধবার, ১১ই ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬


জাতীয় জাদুঘরে জনসচেতনতা মূলক চিত্র প্রদর্শনী শুরু


২ ডিসেম্বর ২০১৯ ২১:৩৫

আপডেট:
১১ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৬:৫১

ছবি সংগৃহীত

‘বিশ্ব হসপিস অ্যান্ড প্যালিয়েটিভ কেয়ার দিবস’ উদযাপন উপলক্ষে আজ ২ ডিসেম্বর থেকে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী জনসচেতনতা মূলক চিত্র প্রদর্শনী। চলবে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এ উপলক্ষে আজ বিকেল ৪টায় শাহবাগস্থ জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টাশালী হলে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের মহাসচিব চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এবং সভাপতিত্ব করেন প্যালিয়েটিভ কেয়ার সোসাইটি অব বাংলাদেশ-এর সভাপতি সৈয়দ সাদেক মো. আলী।
বক্তব্যে প্রধান অতিথি সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, মৃত্যু পথযাত্রী রোগীদের কষ্ট কমাতে তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। এতটুকু সহানুভূতিশীল আচরণ আমাদের কাছে তারা প্রত্যাশা করে। এটা তাদের অধিকার, আর তাদের সঙ্গে সহানুভূতিশীল আচরণ করা আমদের কর্তব্য। নিরাময় অযোগ্য রোগীদের আমরা অনেক সময়ই ইচ্ছা-অনিচ্ছায় অনাদরে ফেলে রাখি। এটা কোনোভাবেই ঠিক না। তাদের পাশে থাকা, কুশল বিনিময় করা, উৎসাহ দেয়া আমাদের দায়িত্ব।
অনুষ্ঠানের সভাপতি সৈয়দ সাদেক মো. আলী বলেন, মৃত্যু পথযাত্রী যেসকল রোগী আছেন, আমরা প্রায়শই তাদেরকে অযত্ন-অবহেলা করি। এটা উচিৎ না। তাদের মৃত্যু যন্ত্রণা কমাতে আমাদের উচিৎ তাদের পাশে থাকা, খোঁজ-খবর রাখা এবং নিয়মিত কথাবার্তা বলা। যদিও আমরা এবং রোগী সবাই জানি তারা বেশিদিন বাঁচবে না, তবুও তাদের আশার আলো দেখাতে হবে, উৎসাহিত করতে হবে।
অনারোগ্য রোগে আক্রান্তরোগী ও রোগীর পরিবারের কষ্ট, যন্ত্রণা এবং ভোগান্তি জনসাধারণের কাছে তুলে ধরাই এই আয়োজনের মূল লক্ষ বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ডা. জেরিন দেলোয়ার হোসেন। উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা শেষে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘যাত্রী’র গান পরিবেশিত হয়।
একই আবহে আগামীকাল বিকেল ৩টায় প্ল্যাটফর্ম ও প্যালিয়েটিভ কেয়ার সোসাইটি অব বাংলাদেশ-এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ক সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান। বিকেল ৫টায় রয়েছে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিশ্ব সাহিত্য-কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ।
এতে বিশেষ আলোচক হিসেবে থাকবেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, প্যালিয়েটিভ কেয়ার সোসাইটি অব বাংলাদেশ-এর উপদেষ্টা খালীদ হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শারমিন লাকী। সন্ধ্যা ৬টায় থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘সায়ানের সঙ্গে গানালাপ’।
৪ ডিসেম্বর আয়োজনের সমাপনী দিন বিকেল ৪টায় রয়েছে স্বরশ্রুতির বাচিকশিল্পীদের পরিবেশনায় আবৃত্তি। বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে প্যালিয়েটিভ কেয়ার সোসাইটির পরিবেশনায় বিশেষ সাংস্কৃতিক আয়োজন। সন্ধ্যা ৬টায় গাছের গান পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শেষ হবে তিন দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য এ আয়োজন।
উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর প্যালিয়েটিভ কেয়ার ২০০৭ সাল থেকে প্রশমন সেবা বা প্যালিয়েটিভ কেয়ার দিয়ে আসছে। অনারোগ্য রোগে আক্রান্তরোগী এবং রোগীর পরিবারের কষ্ট ও ভোগান্তি কমিয়ে জীবনের গুণগত মান উন্নয়ন করাই এই সেবার মূল উদ্দেশ্য।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বর্তমানে বাংলাদেশে ৬ লক্ষ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ এবং ২৯ হাজার শিশুর প্যালিয়েটিভ কেয়ার দরকার। সার্বজনীন স্বাস্থ্যব্যবস্থা (ইউনিভার্সাল হেলথ কভারেজ)-এর প্রতি সরকারের সুদৃঢ় অবস্থানের প্রতি সম্মান জানিয়ে জাতীয় স্বাস্থ্যনীতিতে প্রশমন সেবাকে অন্তর্ভুক্তকরণ দাবী তুলে এবারের প্রতিপাদ্য ‘আমার যত্ন, আমার অধিকার’।