ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ১৭ই অক্টোবর ২০১৯, ৩রা কার্তিক ১৪২৬


শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদির বৈঠক দুপুরে


৫ অক্টোবর ২০১৯ ১০:৪৭

আপডেট:
৫ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:৪৪

ফাইল ছবি

দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় নয়াদিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন, আসামের নাগরিকত্ব তালিকা, সীমান্তে হত্যা প্রতিরোধ, উন্নয়ন-জ্বালানি খাতে সহযোগিতা, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনসহ দ্বিপাক্ষিক নানা বিষয়ে আলোচনার কথা রয়েছে।

এই বৈঠকে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। এছাড়া বৈঠকে ছয় থেকে সাতটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বৈঠকে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের ওপর আরোপিত অ্যান্টি ডাম্পিং ও অ্যান্টি সারকামভেনশন ডিউটি প্রত্যাহারের বিষয়েও আলোচনা হতে পারে। এছাড়া বিএসটিআই অনুমোদিত পণ্য ভারতের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের অনুমোদনের বিষয়ে উদ্যোগ ও উভয় দেশের স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি পণ্যের তালিকা বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা হতে পারে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

দিল্লির হায়দারাবাদ হাউসে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শেষে রাষ্ট্রীয় ভোজ অনুষ্ঠিত হবে। পরে বিকেলে রাষ্ট্রপতি ভবনে ভারতের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করবেন শেখ হাসিনা। এছাড়া চলচ্চিত্র নির্মাতা শ্যাম বেনেগালের সঙ্গেও সাক্ষাতের কথা রয়েছে তার। সোমবার সকালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে ভারত ত্যাগের কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিটে যোগ দিতে চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ৩ অক্টোবর ভারত সফর করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একাদশ জাতীয় নির্বাচনের পর নতুন মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারই প্রথম ভারত সফরে গেছেন।

এদিকে, ভারতের জাতীয় নির্বাচনের পর পুনরায় ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। সেদিক থেকে বাংলাদেশ ও ভারতের দুই প্রধানমন্ত্রী নতুন মেয়াদে দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের মতো দিল্লিতে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসছেন। সে কারণে উভয় দেশের মধ্যে রাজনৈতিক সম্পর্ক বাড়ানোর বিষয়েও দুই প্রধানমন্ত্রী জোর দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এর আগে ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল সর্বশেষ দিল্লি সফরে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অবশ্য ২০১৮ সালের ২৫ মে পশ্চিমবঙ্গের শান্তি নিকেতনে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধনে সেখানে গিয়েছিলেন শেখ হাসিনা।

নতুন সময়/এনকে