ঢাকা রবিবার, ১১ই এপ্রিল ২০২১, ২৯শে চৈত্র ১৪২৭


তুফান সরকারের জামিন আবেদনের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা


১ এপ্রিল ২০২১ ১৪:৫৩

অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে হওয়া মামলায় বগুড়ার বহুল আলোচিত বহিষ্কৃত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে এ মামলায় আগামী ৬ মাস দেশের কোনো আদালতে তিনি জামিন আবেদন করতে পারবেন না বলে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই মামলায় জানি প্রশ্নে জারি করা রুলের তথ্য গোপন করে নতুন করে জামিন আবেদন করায় এ আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোসত্মাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) এ আদেশ দেন।

তুফান সরকারের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট শাহ আলম সরকার। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মো. সাজ্জাদ হোসেন।

আদালত তুফান সরকারের আইনজীবীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, 'আপনার ক্লায়েন্ট অনেক স্মার্ট। আগের আবেদনের রুল বিচারাধীন। এরপর আবার নতুন করে আবেদন করেছেন। তাই আগের রুল খারিজ করা হলো। আর এ মামলায় আগামী ৬ মাস দেশের কোনো আদালতে জামিন আবেদন করতে পারবেন না।'

অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগের মামলায় বগুড়ার বহুল আলোচিত বহিষ্কৃত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের জামিন আবেদন কেন মঞ্জুর করা হবে না- তা জানতে চেয়ে গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর রুল জারি করেন হাইকোর্টের একই বেঞ্চ। ওই রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় একই আদালতে পৃথক একটি জামিন আবেদন করেন তুফান সরকার। এ আবেদনটি শুনানির জন্য উপস্থাপিত হলে দুদকের আইনজীবী আগের আদেশের তথ্য আদালতকে অবহিত করেন। এরপর আদালত আগের আদেশের নথি তলব করেন। এই নথি আজ বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) আদালতে উপস্থাপন করা হয়। এরপর শুনানি শেষে তুফান সরকারের জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে আদেশ দেন আদালত।

তুফান সরকারের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর বগুড়া সদর থানায় মামলা করে দুদক। মামলায় বলা হয়, জ্ঞাত আয় বহির্ভূতভাবে এক কোটি ৫৯ লাখ ৫৮ হাজার ৮৮৫ টাকা অর্জন করেছেন তুফান সরকার। যা তার আয়কর রিটার্নে দেখিয়েছেন। বাস্তবে আসামি তুফান সরকারের আয়ের কোনো বৈধ উৎস ছিল না।

২০১৭ সালে বগুড়ায় মা ও মেয়েকে নির্যাতনের পর মায়ের মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগ ওঠে তুফান সরকারের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনায় তার বিরম্নদ্ধে করা পৃথক দুটি মামলা বগুড়ার আদালতে চলমান। ওই মামলায় ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই থেকে সে কারাবন্দি।

এরইমধ্যে এ মামলায় হাইকোর্ট তুফান সরকারের জামিনের আবেদন খারিজ করেছেন। এর বাইরে তার বিরুদ্ধে দুদক জ্ঞাত আয় বহির্ভূতভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে। এ মামলায় হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করা হয়।