ঢাকা মঙ্গলবার, ২০শে আগস্ট ২০১৯, ৬ই ভাদ্র ১৪২৬


বাংলাদেশিদের জন্য হাত বাড়াল আরব আমিরাত


২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৭:১৪

আপডেট:
২০ আগস্ট ২০১৯ ১৩:৪৬

বন্ধ ছিল প্রায় দীর্ঘ ছয় বছর। এরপর আবারও বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য চালু হতে যাচ্ছে ‘ভিসা ট্রান্সফার’ ব্যবস্থা। এর ফলে দেশটিতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ভিসা পরিবর্তন করে অন্য কোম্পানিতে যোগ দিতে আর কেন ঝামেলা পোহাতে হবে না। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ডা. মোহাম্মদ ইমরান।

সম্প্রতি দূতাবাসের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও শ্রম মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে ভিসা পরিবর্তনের এই বিষয়টি তিনি নিশ্চিত হয়েছেন। ইমরান বলেন, এই সুযোগ সৃষ্টির মধ্য দিয়ে আমিরাতে প্রবাসীরা ভালো চাকরি করতে পারবেন। তাদের অবৈধ আবাসনকে বৈধ করতে পারবেন।

এদিকে আমিরাত সরকার চলতি বছরের ১ আগস্ট থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত তিন মাসের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে। এর ফলে হাজার হাজার অবৈধ প্রবাসী এখন বৈধ হতে পারবেন।

বাংলাদেশের ডিজিটাল পাসপোর্টের বিষয়ে তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূত যেসব অবৈধ প্রবাসী আমিরাতে রয়েছেন তাদের কোনও ধরনের ডকুমেন্ট বা কাগজপত্র না থাকলেও তাদের ডিজিটাল পাসপোর্ট বা এমআরপি তৈরির সুযোগ দেয়া হবে। এই ব্যাপারে দূতাবাসের সহায়তার আহ্বান জানাচ্ছি। একইসঙ্গে সবাইকে বৈধ হয়ে দেশটির আবাসন আইন মেনে চলতে আহ্বান জানাচ্ছি।

অন্যদিকে দীর্ঘদিন ধরে ভিসা পরিবর্তনের সুযোগ না থাকায় দেশটিতে অবস্থানরত হাজার হাজার প্রবাসীর ভোগান্তির শেষ ছিল না। কিন্তু ভিসা পরিবর্তনের খবরে প্রবাসীদের মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে। তাই এ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এর আগে ২০১২ সালে মাঝামাঝি বাংলাদেশিদের অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি ও অনভিজ্ঞ শ্রমিক পাঠানোসহ বেশ কিছু কারণ দেখিয়ে আমিরাত সরকার বাংলাদেশিদের ভিসা বন্ধ করে দেয়। তবে গেল এপ্রিল মাসে বাংলাদেশ থেকে ১৯ ক্যাটাগরিতে লোক নিতে আমিরাত সরকারের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক সই করে ঢাকা-আবুধাবি।

উল্লেখ্য, মধ্যপ্রাচ্যে সৌদি আরবের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহৎ শ্রমবাজার আমিরাতে বর্তমানে ছয় লাখেরও বেশি কর্মী রয়েছে।

এমএ