ঢাকা শনিবার, ২০শে এপ্রিল ২০১৯, ৮ই বৈশাখ ১৪২৬

স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া থামাতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু


৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০১:০৭

আপডেট:
২০ এপ্রিল ২০১৯ ০৬:২৬

কুমিল্লায় স্বামী-স্ত্রী’র মধ্যকার ঝগড়া মেটাতে গিয়ে প্রতিহিংসার শিকার হয়ে ছুরিকাঘাতে এজাজ (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি কুমিল্লা হাউজিং এস্টেট এলাকার ৩নং সেকশনের ৬৩ নং বাসার মৃত সেকান্দর আলীর ছোট ছেলে। 

সোমবার বিকেলে হামলার পর রাতে ঢাকা নেয়ার পথে সাড়ে ৯টার দিকে কাঁচপুর সেতু এলাকায় মারা যান তিনি। এজাজ পেশায় একজন মোটর মেকানিক।

নিহত এজাজের বড় বোন সাহিদা জানান, সোমবার দুপুরে পাশের ১০৪নং বাসার মুন্নীর সাথে তার স্বামী দুলাল মিয়ার দ্বন্দ্ব চলছিল। এ সময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ধস্তাধস্তি ও মারধর শুরু হলে আমার ভাই বাধা দেয়। ঘটনাস্থলে প্রতিবেশীসহ অন্যান্যরা জড়ো হলে মুন্নীর স্বামী দুলাল আমার ভাই এজাজকে দেখে নিবে বলে হুমকি দিয়ে সেখান থেকে চলে যায়। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর বিকাল ৩টার মুন্নীর স্বামী দুলাল আরো পাঁচজনকে সাথে করে নিয়ে আসে। এ সময় তারা এজাজকে বাড়ির সামনে রাস্তায় একা পেয়ে ছুরিকাঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে সেখান থেকে আমরা তাকে দ্রুত কুমেক হাসপাতালে নিয়ে যাই।

তিনি আরো বলেন, অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে কাঁচপুর সেতু এলাকায় ৯টার দিকে মারা যায় এজাজ।

রাত ১১টার দিকে কুমিল্লা হাউজিং এস্টেট এলাকায় গিয়ে দেখা যায় এক শোকাবহ পরিবেশ। এজাজের স্বজনদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে সেখানকার পরিবেশ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত কুমিল্লা কোতয়ালী থানার মডেল ওসি তদন্ত সালাহ উদ্দিন তিনি জানান, পাশের বাসার মুন্নীর সাথে তার স্বামী দুলাল মিয়ার পারিবারিক দ্বন্দ্ব চলছিল। সেখানে এজাজ মিয়া মধ্যস্থতা করতে গেলে ঘটনার সূত্রপাত হয়। লাশ উদ্ধার করে তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।