ঢাকা রবিবার, ৮ই ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬


ফল উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশ ২৮তম


৩১ জুলাই ২০১৯ ০৯:৩৬

আপডেট:
৮ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৫:৫৯

ফল উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশ ২৮তম ও আম উৎপাদনে সপ্তম ও পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম অবস্থানে রয়েছে।
আজ সংসদ ভবনে একাদশ জাতীয় সংসদের কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৪র্থ বৈঠকে এই তথ্য জানানো হয়। কমিটি সভাপতি মতিয়া চৌধুরী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় কমিটি সদস্য কৃষি মন্ত্রী মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, মুহাঃ ইমাজ উদ্দিন প্রাং, মো: মোসলেম উদ্দিন, আব্দুল মান্নান, মোঃ মামুনুর রশীদ কিরন, জয়া সেন গুপ্তা এবং হোসনে আরা বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে জানানো হয়, ফল বিভাগ, উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এ পর্যন্ত ৩৫ প্রজাতির ফলের ৮৪টি উচ্চ ফলনশীল জাত উদ্ভাবন করেছে। বাংলাদেশ কৃষি বিশ^বিদ্যালয় থেকে ২৪ প্রজাতির ফলের ৮৪টি, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় থেকে ৫ প্রজাতির ফলের ৭টি এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ^বিদ্যালয়, গাজীপুর থেকে ফলের ২ প্রজাতির ২টি জাত উদ্ভাবন করা হয়েছে।

এ ছাড়াও বৈঠকে জানানো হয় যে, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের সংশোধিত এডিপিতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতায় মোট ৭২টি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন ছিল। যার অনুকুলে মোট বরাদ্দ ছিল ১৮০৬ দশমিক ৮৯ কোটি টাকা, তম্মধ্যে জিওবি ১৪৪৮ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৩৫৮ দশমিক ৫০ কোটি টাকা। এ অর্থ বছরে অর্থ ব্যয় হয়েছে ১৭৭৫ দশমিক ৭৮ কোটি টাকা, যা মোট সংশোধিত এডিপি বরাদ্দের ৯৮ দশমিক৩০ শতাংশ। এর মধ্যে জিওবি খাতে ব্যয় হয়েছে ৯৯ দশমিক ০৩ শতাংশ এবং প্রকল্প সাহায্য খাতে ব্যয় ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ। বর্তমান অর্থ বছরে জাতীয় গড় অগ্রগতি (৯৪.২৩%) অপেক্ষা এ মন্ত্রণালয়ের অগ্রগতি বেশি হয়েছে।

সভায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের সার্বিক কার্যক্রম নিয়ে বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বৈঠকে দেশের সামগ্রিক বন্যা পরিস্থিতিতে কৃষি মন্ত্রণালয় কী করণীয় আছে সে বিষয়ে কমিটিকে অবহিত করার সুপারিশ করা হয়।