ঢাকা সোমবার, ২১শে জানুয়ারী ২০১৯, ৯ই মাঘ ১৪২৫


অস্ট্রেলিয়া জয় করলো কোহলির ভারত


৭ জানুয়ারী ২০১৯ ১৫:০৬

আপডেট:
২১ জানুয়ারী ২০১৯ ১৩:৫৫

সৌরভ গাঙ্গুলী- মহেন্দ্র সিং ধোনিরা যা পারেননি সেই অসাধ্য সাধন করলেন বিরাট কোহলি। ভারতের ক্রিকেটে এখন তা ঐতিহাসিক। কোহলির ক্যারিয়ারেও তাই। সিরিজ শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও সফলতম অধিনায়ক রিকি পন্টিং ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন ৪ ম্যাচের সিরিজে তার দেশ জিতবে ২-১ ব্যবধানে। কিন্তু প্রায় ১ মাসব্যাপী সিরিজ শেষে ফলাফল এসেছে ২-১'ই- তবে সেটি ভারতের পক্ষে।

গোটা ভারতীয়দের মনেই আলাদাভাবে গেঁথে থাকার কথা এই অর্জনের। কারণ ৭১ বছর পর এলো এমন মাহেন্দ্রক্ষণ। ধোনিরা যখন ২০১১ বিশ্বকাপ যেতে, তখন তারা এর গুরুত্ব বুঝেছিলো বলে আবেগ আপ্লুত হয়েছিলো। সেই দলের তরুণ সদস্য হওয়ায় এমন মুহূর্তের মর্মার্থটা টের পাননি কোহলি। কিন্তু নিজেই যখন এমন মুহূর্তের সামনে চলে এলেন, তখন এর মানে বুঝতে পারছেন ভারতীয় অধিনায়ক, ‘২০১১ বিশ্বকাপ যখন জিতি তখন সেই দলের তরুণ সদস্য ছিলাম। আমার চারপাশের লোকজনকে আপ্লুত হতে দেখেছি। ওরা যা অনুভব করেছিলো আমি তা পারিনি। এই অস্ট্রেলিয়ায় তৃতীয়বার এসে যখন এমন কৃতিত্ব অর্জন করলাম তখন বুঝতে পারলাম এখানে আমরা কী অর্জন করেছি। যা আগে কেউ করতে পারেনি, সেটা আমাদের গর্বিত করছে।’

কোহলি বললেন- অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথমবার এমন টেস্ট সিরিজ আলাদা করে চেনাবে তার দলকে, ‘ভারতীয় দল হিসেবে এই জয় সবার কাছে আমাদের নতুনভাবে চেনাবে। শুধু তাই নয় ছোট ছেলেদের প্রেরণার রসদ যোগাবে যাতে করে দেশের জন্য তারা ভালো কিছু করতে উদ্বুদ্ধ হয়।’

এই সিডনিতেই চার বছর আগে ২০১৫ সালে পুরো অধিনায়কের দায়িত্ব পান কোহলি। আর সেই মাঠে এমন অর্জনকে মাইলফল হিসেবে মনে করেন কোহলি, ‘এই সিরিজ জয় অবশ্যই আমাদের জন্য মাইলফলক। যদি দেখেন দলের সবার গড় বয়স কিন্তু খব কম। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো আমাদের সেই আত্মবিশ্বাসটা আছে।’