ঢাকা শুক্রবার, ১৬ই নভেম্বর ২০১৮, ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫


বান্ধবীকে ধর্ষণের দৃশ্য সইতে না পেরে তরুণের আত্মহত্যা


১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৭:১৭

আপডেট:
১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৭:২৬

প্রতীকী ছবি

নিজের চোখের সামনেই বান্ধবীকে গণধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা। সেই ধর্ষণের দৃশ্য দেখতে ওই তরুণকে বাধ্যও করে ধর্ষকরা। ঘটনাটি সহ্য করতে না পেরে বাড়ি গিয়ে আত্মহত্যা করেন ১৯ বছরের ওই তরুণ। গত ১ সেপ্টেম্বর ভারতের ছত্তিশগড়ে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্যাতিত ওই কিশোরী গত বুধবার রাতে ছত্তিশগড়ের কোরবা পুলিশ স্টেশনে গিয়ে পুরো ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে পুলিশকে জানান, গত ১ সেপ্টেম্বর বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সময় তার এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা হয়। রাস্তা ফাঁকা হওয়ায় ওই তরুণ তাকে বাড়ি পর্যন্ত এগিয়ে দিতে চায়। তারা একসঙ্গে হাঁট ছিলেন। সে সময় সেখানে বাইক নিয়ে উপস্থিত হন ঈশ্বর দাস ও খেম কানওয়ার নামে দুই যুবক। রাস্তা ফাঁকা পেয়ে ওই যুবকরা তাদেরকে হেনস্থা করতে শুরু করে। তাদের মোবাইল কেড়ে নিয়ে ওই তরুণকে মারধর করে তারা। ভয়ে মেয়েটি পালাতে চেষ্টা করেও কোন লাভ হয়নি। এক পর্যায়ে তাদের হাতে পাকরাও হন কিশোরী। এরপর ওই তরুণ বন্ধুর সামনেই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে একজন। অপরজন তখন ছেলেটিকে মারতে মারতে সেই দৃশ্য দেখতে বাধ্য করে।

বান্ধবীকে ধর্ষণের এই ঘটনা সহ্য করতে পারেনি তার বন্ধু। বাড়িতে ফিরে সে আত্মহত্যা করে। কিশোরীর জবানবন্দির ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত ঈশ্বর ও খেমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।