ঢাকা বুধবার, ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ই পৌষ ১৪২৫


রাতে ওয়াইফাই বন্ধ না করলেই বিপদ


৭ নভেম্বর ২০১৮ ১৪:২০

আপডেট:
৭ নভেম্বর ২০১৮ ১৫:২৩

আমাদের জীবন খুবই স্বল্প। এই স্বল্প জীবনে আমাদের জীবনযাপনের নিয়ম কানুনের উপর আমাদের সুস্থতা, শক্তি ও সুস্থ মস্তিষ্ক নির্ভর করে। অথচ এই নিয়ম কানুন বা স্রোতের বিপরীত দিকে চললেই মানুষের চলার পথটি অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। আর এই সমস্যাটি তখনি সম্মুখীন হতে হয় যখন মানুষ রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে কিছু অনিয়ম করে বসে।

ছবিতে রীতি

জেনে নেয়া যাক এই অনিয়মগুলো কি এবং এগুলো থেকে বিরত থাকার উপায়ঃ

১. অনেকেই আছেন যারা পেট ভরে ভাত বা কোন ভারী খাবার খেয়ে সাথে সাথে ঘুমিয়ে পড়েন এতে শরীরের মেটাবলিজম দূর্বল হয়ে যায় ফলে দ্রুত শরীর ফুলে যায়, হৃদপিন্ড দূর্বল হয়ে যায় ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে।

২. অনেকেই রাতে ঘুমানোর আগে দাত ব্রাশ করেন না সকালে ঘুম থেকে উঠে করবেন বলে। কিন্তু ঘুমাতে যাওয়ার আগে দাত ব্রাশ করা খুব জরুরি কারন রাতে ঘুমের মধ্যে দাতের জীবানুগুলো দাত ক্ষয়ে সাহায্য করে।

৩. রাতের খাবারের পরেও ভাজাপোড়া, ভারী কোন খাবার খাওয়ার অভ্যাস থাকলে তার বদলে হাল্কা গরম দুধ বা টক দই খাবেন৷

৪. রাতে ঘুমানোর আগে ঘরের যে ওয়াইফাই আছে সেটি বন্ধ করে ঘুমান কারণ ওয়াইফাই আপনার জন্য বিপদ ডেকে নিয়ে আসতে পারে। এই ওয়াইফাই অনেক ভয়ংকর রেডিয়েশন তৈরি করে যা ক্যান্সার ছড়ায়।

৫. রাতে একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ইন্টারনেট ব্যাবহার করুন তারপর বন্ধ করুন কারণ মনে রাখবেন পৃথিবীর সবকিছুকে আপনার পার্সোনাল কক্ষে এনে এক করবেন না।

৭. ঘুমানোর আগে নেগেটিভ চিন্তাগুলোকে বাদ দিয়ে পজিটিভ চিন্তা করুন এতে আপনার জ্ঞান বাড়বে এবং শান্তিতে থাকবেন।

৮. ঘুমানোর আগে সারাদিন যা করলেন তা চিন্তা করুন। ভাল ও খারাপ কাজের পার্থক্য নিজেই বুঝে যাবেন।

এভাবে উপরের নিয়মাবলী অনুসরণ করলে আপনি সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারবেন। আলস্যতা আপনাকে শত্রু মনে করবে এবং কর্মদক্ষতা আপনাকে আপনার লক্ষে পৌঁছে দিবে।

এমএ